আমেরিকার দুর্দান্ত সব জলপ্রপাতের গল্প

আধুনিকতার আদলে দণ্ডায়মান আমেরিকার সবটাই দালানকোঠায় ঠাসা নয়। প্রকৃতি সেখানেও কার্পণ্য করেনি তার সৌন্দর্য উজাড় করে দিতে। সেখানে যেমন আছে বিশ্ববিখ্যাত হলিউড, তেমনি আছে ছোট বড় প্রচুর পাহাড়, মরুভূমি, মালভূমি আর দারুণ সব জলপ্রপাত।

আমেরিকার জলপ্রপাতগুলোর বিশেষত্ব হলো তাদের একটি আপনার দেখা হলে দেখতে ইচ্ছে করবে বাকিগুলোও। সুউচ্চ পর্বত থেকে পাথরের বুকে আছড়ে পড়া সেই সুবিশাল জলরাশি আমেরিকায় ঘুরতে আসা পর্যটকরা রাখে বাকেট লিস্টের প্রথম দিকে।

আমেরিকায় ঘুরতে গেলে হাতছাড়া করা যাবে না এর সুবিশাল সব জলপ্রপাতগুলো। নায়াগ্রা ফলসের কথা কম বেশি সবাই শুনেছি। নায়াগ্রা ফলসের সাথে আমাদের পরিচয় থাকলেও অজানা রয়ে গেছে আরো অনেক জলপ্রপাত আর ঝর্ণার। আমাদের আজকের আয়োজন সেইসব জলপ্রপাত আর ঝর্ণা নিয়ে। চলুন দেখে আসা যাক সেইসব জলপ্রপাত যা বহু বছর ধরে হয়ে আছে আমেরিকান পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু।

১. নায়াগ্রা ফলস

নায়াগ্রা ফলস, ছবিঃ i.ytimg.com

এই তালিকার প্রথমেই থাকছে বহুল পরিচিত নায়াগ্রা জলপ্রপাত। আমেরিকা আর কানাডার একেবারে সীমান্তেই উত্তর আমেরিকার সবচেয়ে শক্তিশালি জলপ্রপাত নায়াগ্রা জলপ্রপাত। মোট তিনটি জলপ্রপাত ব্রাইডাল ভেইল জলপ্রপাত, আমেরিকান জলপ্রপাত আর হর্সশো জলপ্রপাতের সমন্বয়ে তৈরি নায়াগ্রা জলপ্রপাত আমেরিকার সবচেয়ে দৃষ্টিনন্দন জলপ্রপাতগুলোর একটি।

কেউ যদি খুব কাছ থেকে এই জলপ্রপাতের সৌন্দর্য উপভোগ করতে চায় তবে তার জন্য রয়েছে “মেইড অফ দ্য মিস্ট” নামে খ্যাত নৌকা ভ্রমণ। সাথে করে পাসপোর্ট নিয়ে আসলে দেখা যাবে এই জলপ্রপাতের কানাডিয়ান অংশটুকুও।

২. হাভাসু জলপ্রপাত, অ্যারিজোনা

হাভাসু জলপ্রপাত, ছবিঃ wallpaperstudio10.com

সহজে যাওয়া যায় না আবার হাতছাড়াও করা যায় না, এমনি একটি জলপ্রপাত হাভাসু জলপ্রপাত। গ্র্যান্ড ক্যানিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চল হাভাসুপাই ট্রাইভ রিসার্ভেশনের দুরারোহ পর্বত আর গুহার মাঝে লুকিয়ে আছে হাভাসু জলপ্রপাত। প্রায় ৯০ ফুট উঁচু থেকে হাভাসু জলপ্রপাতের নীল-সবুজ জলরাশি আছড়ে পড়ে হাভাসু খাতে।

হুলালাপাই হিল্টপপ থেকে ১০ মাইলের ট্রেকিং অথবা ঘোড়ায় চড়ে আসা যায় হাভাসুতে। এই জলপ্রপাতের সৌন্দর্য একমাত্র তারাই জানে যারা চাক্ষুষ দেখে এসেছে। হাভাসুর কাছেই আছে সুপাই গ্রাম যেখানে হাভাসু লজে আছে থাকা-খাওয়ার সুব্যবস্থা।

৩. পালউজ জলপ্রপাত, ওয়াশিংটন

পালউজ জলপ্রপাত, ছবিঃ jonvilma.com

ওয়াশিংটনের দক্ষিণ-পূর্ব দিকে বহমান পালউজ নদী একটি গভীর খাদে গিয়ে পরিণতি লাভ করে জলপ্রপাত হিসেবে যার নাম পালউজ জলপ্রপাত। জলপ্রপাতটি অবস্থিত ওয়াশিংটনের ১০৫ একর পালউজ ফলস স্টেইট পার্কে যেখানে রয়েছে ক্যাম্পের মাঠ, পিকনিক টেবিল আর হুইলচেয়ার চলার মতো পথ।

এই জলপ্রপাত দেখার সবচেয়ে উপযুক্ত সময় হলো সূর্যাস্তের সময়, খাদের প্রতিটি দেয়ালে জলরাশি আর সূর্যের লাল আভা সৃষ্টি করে অপার্থিব এক দৃশ্যের, যা মাথা থেকে মুছে ফেলা মোটেই সহজসাধ্য নয়।

৪. ইয়োজমাইট ফলস, ক্যালিফোর্নিয়া

ইয়োজমাইট ফলস, ছবিঃ i.pinimg.com

ক্যালিফোর্নিয়ার ইয়োজমাইট জাতীয় উদ্যানে চারদিকের পর্বতগাত্র থেকে বেয়ে পড়া অবাধ্য জলপ্রপাত পাওয়া যাবে অনেক। কিন্তু ২,৪২৫ ফুট উচ্চতা থেকে নিচের পাথরে বুক বিদীর্ণ করা ইয়োজমাইট জলপ্রপাতের তুলনা হবে না বাকি একটি জলপ্রপাতেরও।

বিশ্বের সবচেয়ে উঁচুস্থানের জলপ্রপাতগুলোর মধ্যে একটি এই ইয়োজমাইট তৈরি তিনটি পৃথক জলপ্রপাত থেকে। আপার ফলস, লোয়ার ফলস আর মিডেল ক্যাসকেড বলা হয় তাদের। সারাবছরই উপভোগ করা যায় ইয়োজমাইটের সৌন্দর্য, তবে সবচেয়ে উপযুক্ত সময় হলো বসন্ত যখন পর্বতচূড়ায় জমে থাকা বরফও আছড়ে পড়ে ইয়োজমাইটের অপার জলরাশির সাথে।

৫. রামোনা ফলস, ওরিগন

রামোনা ফলস, ছবিঃ walldevil.com

ওরিগনের মাউন্ট হুড জঙ্গলে রামোনা ফলসের ট্রেইল ধরে এগোলেই দেখা মিলবে আমেরিকার অন্যতম সুন্দর জলপ্রপাত রামোনা জলপ্রপাতের। ১২০ ফুট উচ্চতার এই জলপ্রপাত আমেরিকার সবচেয়ে উঁচু, প্রশস্ত আর শক্তিশালী জলপ্রপাত না হলেও কিছু একটা বিশেষত্ব আছে এই জলপ্রপাতের।

ঘন মসের জঙ্গল মাউন্ট হুডের কাছে এই জলপ্রপাত অনেকটা তার সন্তানের মতো, যাকে আগলে রেখেছে মাউন্ট হুড সুপ্রাচীন যত্নে। রামোনার পানি যখন আছড়ে পড়ে পাথরের বুকে, তখন পানির গা বেয়ে যে কুয়াশাময় দৃশ্যের অবতারণা হয় সেটিই পূর্ণতা দিয়েছে এই জলপ্রপাতকে।

৬. রুবি ফলস, টেনেসি

রুবি ফলস, ছবিঃ wordpress.com

আমেরিকার চট্টানোগাতে ভূগর্ভস্থ গুহার ভেতর এক জলপ্রপাত আছে যার নাম রুবি ফলস। যে ব্যক্তি এই জলপ্রপাত আবিষ্কার করেন তার স্ত্রীর নামানুসারে এই জলপ্রপাতের নামকরণ করা হয়। ১৪৫ ফুট উচ্চতার এই জলপ্রপাতের বিশেষত্বই হচ্ছে এটা পুরোটা গুহার ভেতর অবস্থিত।

বহু বছর ধরে পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে থাকা এই জলপ্রপাতের আবেদন কমেনি এতটুকুও। সেই গুহার ভেতর এখন নানান রঙের আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হয়েছে যা রুবি জলপ্রপাতকে করেছে আরো দৃষ্টিনন্দন।

৭. আলামেরি ফলস, ক্যালিফোর্নিয়া

আলামেরি ফলস. ছবিঃ worldtoptop.com

সান ফ্রান্সিস্কোর উত্তরে পয়েন্ট রেয়েস জাতীয় সমুদ্রসৈকতের খুব কাছেই অবস্থিত আলামেরি জলপ্রপাত সরাসরি তার জলরাশি ঢালছে প্রশান্ত মহাসাগরে। প্রবাহপ্রপাত বা সৈকত জলপ্রপাত নামে পরিচিত এই আলামেরি পর্যটকদের পছন্দের একটি স্থান।

এই জলপ্রপাতে পৌঁছাতে গেলে সৈকত পথে সৌন্দর্য উপভোগ করতে করতে হাঁটতে হবে ঠিক ৮ মাইল পথ। একটু কষ্ট হলেও বৃথা যাবে না সে কষ্ট, আলামেরি জলপ্রপাতের চোখ ধাঁধানো ল্যান্ডস্কেপ আর সমুদ্রসৈকতের মাদকতা ভরা পরিবেশে হারিয়ে যেতে সময় লাগবে না বেশি।

৮. স্নোকোয়ালমি ফলস, ওয়াশিংটন

স্নোকোয়ালমি ফলস, ছবিঃ viator.com

ওয়াশিংটনের সবচেয়ে আকর্ষণীয় জলপ্রপাতগুলোর মধ্যে একটি হলো স্নোকোয়ালমি জলপ্রপাত। প্রতি বছর প্রায় দেড় মিলিয়ন পর্যটক ঘুরে যায় স্নোকোয়ালমি জলপ্রপাত থেকে। এই জলপ্রপাতের বিশেষত্ব হলো স্নোকোয়ালমি সম্প্রদায়ের কেউ মারা গেলে কবর দেয়া হতো এখানে।

এখনো এই জলপ্রপাত অঞ্চলে এই পবিত্রতা বজায় রাখা হয়, সম্মান করা হয় স্নোকোয়ালমি সম্প্রদায়ের অনুভূতিকে। প্রচুর হাইকিং ট্রেইল, পর্যবেক্ষণ ডেক আর জলপ্রপাতের একদম ডানে রয়েছে সালিশ লজ।
ফিচার ইমেজ- i.pinimg.com

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এশিয়ার সর্ববৃহৎ কৃত্রিম জলাশয়ে আট ঘণ্টা নৌভ্রমণের আদ্যোপান্ত

স্বর্ণ মন্দিরের সোনালী ছটার রূপরেখা