দিগন্তের সাথে বিছনাকান্দি ও রাতারগুল ভ্রমণ

এটি Digonto Travel Freak এর একটি নিজস্ব ইভেন্ট। 

সিলেটের দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে বিছনাকান্দি ও রাতারগুল অন্যতম। ভরা বর্ষায় এই দুইটি জায়গার রূপ ও বৈচিত্রে আসে আমূল পরিবর্তন। বর্ষায় ভারতের মেঘালয় থেকে নেমে আসা পানির স্রোতে বিছনাকান্দি ফিরে পায় তার সৌন্দর্যের পরিপূর্ণ রূপ। আর রাতারগুলের শুকনো জায়গাগুলোও হয়ে যায় পানিতে পরিপূর্ণ। তাই এই দুইটি জায়গা ভ্রমণের জন্য বর্ষাকালটিই সবচেয়ে উত্তম। সেই উত্তম সময়টাকে কাজে লাগাতে আমাদের বিছনাকান্দি ও রাতারগুল ভ্রমণ।

এই ইভেন্টে যা যা থাকবে:

  • বিছনাকান্দি
  • রাতারগুল
  • ওয়াচ টাওয়ার
  • হযরত শাহ জালাল (রাঃ) এর মাজার জিয়ারত 
  • চা-বাগান (সময় সাপেক্ষে)

ভ্রমণের প্রাথমিক প্ল্যান
সেপ্টেম্বর-২৭ (বৃহস্পতিবার):
রাতের বাসে ঢাকা থেকে সিলেটের উদ্দেশ্যে রওনা।

সেপ্টেম্বর-২৮ (শুক্রবার): 
সকালে বাস থেকে নেমে সকালের নাস্তা সারবো পানসীর ঐতিহ্যবাহী খিচুড়ি দিয়ে।তারপর রিজার্ভ লেগুনায় করে রওনা দিবো পিরেরহাটের উদ্দেশ্যে। পিরেরহাট থেকে রিজার্ভ নৌকায় চলে যাবো বিছনাকান্দি। দুপুর পর্যন্ত পানিতে লাফালাফি ঝাপাঝাপি করে রিজার্ভ ট্রলারে ফিরে আসবো পিরের হাট। সেখানে দুপুরের খাবার শেষে সেখান থেকে রিজার্ভ লেগুনাতে করে সোজা রাতারগুল।

তারপর বিকেলটা কাটাবো আমরা রাতারগুলে নৌকায় ঘুরে ঘুরে। সন্ধ্যার আগেই রওনা দিবো সিলেট শহরের উদ্দেশ্যে। ফেরার সময় যদি সময় থাকে ঘুরে আসবো চা-বাগানে। সিলেটে ঢুকে যাবো মাজার জিয়ারত করতে। তারপর পাঁচ ভাই রেষ্টুরেন্টে। সেখানে রাতের খাবার খেয়ে বাসে রওনা দিবো ঢাকার উদ্দেশ্যে

সেপ্টেম্বর-২৯ (শনিবার):
সকাল সকাল ঢাকায় পৌছে খুশি মনে হারিয়ে যাবো নিজের চিরচেনা ব্যস্ত নগরীতে।

টিম সাইজ – ২০ জন 

যা যা অন্তর্ভুক্ত থাকবে 

  • ঢাকা-সিলেট-ঢাকা বাস (আল মোবারক বাস)
  • ০৩ বেলার খাবার
  • রিজার্ভ লেগুনা খরচ
  • রিজার্ভ ট্রলার খরচ (বিছনাকান্দি)
  • রিজার্ভ নৌকা (রাতারগুল)

যা যা অন্তর্ভুক্ত না 

  • যাত্রা বিরতির খাবার
  • যেকোনো ধরনের ব্যাক্তিগত খরচ
  • শপিং
  • পার্সোনাল মেডিসিন

ইভেন্ট ফি – ৳ ২,২০০ টাকা 

বুকিং সিস্টেম :পুরোপুরি কনফার্ম থাকলে ১,০০০+২০ (বিকাশ চার্জ) = ১,০২০/- টাকা (অফেরত যোগ্য) বিকাশের মাধ্যমে প্রদান করে আসন কনফার্ম করতে হবে। অথবা এডমিনের সাথে দেখা করে নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে টাকা দিতে পারবেন। সেক্ষেত্রে শুধুমাত্র ১,০০০/- টাকা দিলেই হবে। বাকি টাকা ট্যুরের দিন (২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮্ইং) তারিখে পরিশোধ করতে হবে।

কনফার্মের শেষ তারিখ: ২২/০৯/২০১৮। (আসন খালী থাকা সাপেক্ষে)।

বিকাশ নাম্বার 
01780200388 (personal)
01675430246 (personal)
01676874913 (personal)

রকেট নাম্বার 
01676874913-1

ব্যাংক একাউন্ট
Account Name : Md. Mizanur Rahman
Account No. 202.105.5766
Bank Name : Dutch Bangla Bank Ltd.
Branch : Ashkona Branch

টাকা পাঠিয়ে নিচের বিষয়গুলো উল্লেখ করে এই নাম্বারে (মোঃ মিজানুর রহমান – 01681864742) এস এম এস করতে হবে।

এসএমএসে যা উল্লেথ করতে হবে:
ইভেেন্টের নাম, আপনার নাম, ফোন নং, টাকার পরিমান, যে নাম্বার থেকে পাঠিয়েছেন।
ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা দিতে চাইলে, টাকা জমা দিয়ে জমা দেয়ার রিসিপ্টের ছবি তুলে ইভেন্টের ওয়ালে পোষ্ট করতে হবে।

যেকোন তথ্য জানতে যোগাযোগ করুণঃ 
মোঃ মিজানুর রহমান ঃ 01681864742
শিহাবুল অয়ন ঃ 01676874913
মাইনুল ইসলাম রাজু ঃ 01675430246

অংশগ্রহণকালীন যা মেনে চলতে হবে 

  • নির্দিষ্ট সময়ে ইভেন্ট ফি পরিশোধ করতে হবে।
  • ট্যুরে বাসে আসন বিন্যাস হবে বুকিংয়ের উপর ভিত্তি করে। তাই পরে বুকিং করে সামনের সিট দেয়ার জন্য অনুরোধ করবেন না। 
  • ইভেন্টে কোন ধরনের মাদকদ্রব্য সেবন/বহন করা যাবে না।
  • ধূমপান করে না এমন কারো সামনে ধূমপান করা যাবে না।
  • ভ্রমণ চলাকালীন যেকোন সমস্যা/দুর্ঘটনা মেনে নেওয়ার মন মানসিকতা নিয়েই অংশগ্রহন করবেন।
  • যেকোন সমস্যা অংশগ্রহনকারী সকলে মিলে সমাধানের চেষ্টা করবেন।
  • সকল নিয়ম কানুন অবশ্যই মেনে চলার দৃষ্টিভঙ্গি নিয়েই অংশগ্রহণ করতে হবে।
  • অতিরিক্ত দু:সাহসিকতা দেখানো যাবে না।
  • দলছাড়া হয়ে ঘোরা যাবে না। বিশেষ প্রয়োজনে দলকে জানিয়ে যাওয়া যেতে পারে।
  • দলের কাউকে কষ্ট দিয়ে কোন কথা বলা বা কাজ করা যাবে না।
  • সম্পূর্ণ ইভেন্ট বিবরণ ও বিস্তারিত পড়ে অংশগ্রহন করতে হবে।
  • সবচেয়ে বড় কথা, অবশ্যই একটি ভ্রমণপিপাসু মন নিয়ে আমাদের সাথে অংশগ্রহণ করতে হবে।

যারা আমাদের সাথে ইতিপূর্বে ট্যুর দেননি, তারা আমাদের পূর্ববর্তী ট্যুর সম্পর্কে প্রার্থমিক ধারণা পেতে চাইলে ঘুরে আসুন : https://www.facebook.com/groups/DigontoTourism/events/?past

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পৃথিবীর শীতলতম মরুভূমি স্পিতি ভ্যালির গল্প

নীলাদ্রি বা শহীদ সিরাজ লেক: সৌন্দর্যের পাশাপাশি লুকানো এক বীরের গল্পগাথা