বিশ্বের সবচেয়ে অদ্ভুত ফুড ফেস্টগুলো

আমরা সবাই স্পেনের তৃতীয় বৃহত্তম মহানগরী ভ্যালেন্সিয়ার লা টমাটিনা ফেস্টিভালের কথা জানি। এই উৎসবে টমেটোসিক্ত নারী পুরুষ প্যাসাটার লেক পাড়ি দেয়। প্যাসাটা হলো টমেটোর রস দিয়ে তৈরি ভারী মিশ্রণ। এই উৎসবের চিত্র কম বেশি সবাই দেখেছি। পরিচিত হলেও স্পেনে টমেটো দিয়ে আবেগপ্রবণ ও অদ্ভুত এই উদযাপন সত্যিই অনন্য।

বিশ্বজুড়ে ভোজ্য খাবারের বিচিত্র সব ফেস্টিভাল উদযাপিত হয়। এর মধ্যে অনেকগুলোই যেমন প্রচলিত রীতি অনুসরণ করে ঠিক তেমনিভাবেই অনেক ফুড ফেস্ট রয়েছে যেগুলোর ধারণা আজও প্রশ্নবিদ্ধ। আজ বিশ্বের অদ্ভুত ফুড ফেস্টিভালগুলোর সব তথ্য জানাবো যা শুনলে আপনি অবাক হবেন।

১. মূলার ভাস্কর্য

নচে দে লস রানাজোস, মেক্সিকোর অত্যন্ত জনপ্রিয় ফুড ফেস্টিভাল। খ্রিস্টানদের বড়দিন উপলক্ষে এই উৎসব আয়োজন করা হয়। প্রতি বছর ২৫ ডিসেম্বরকে সামনে রেখে এই উৎসব উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি চলে। এই উৎসবে ম্যাক্সিকানরা মূলার ভাস্কর্য তৈরি করে। ভাস্কর্য বলা হলেও এগুলো অবশ্যই পচনশীল।

তারা এই উৎসবে মূলা দিয়ে যীশুর জন্মের চিত্রপট তৈরি করে। তৈরি করে সিন্ডারেলা, পশু-পাখি এমনকি বিখ্যাত ও জনপ্রিয় সব মানুষের অবয়ব। এখানকার প্রতিটি সৃষ্টির মধ্যেই মেক্সিকানদের উদ্ভাবনী ক্ষমতার প্রতিফলন দেখা যায়। বড়দিনের এমন উদযাপন পৃথিবীর আর কোথাও হয় না। আর দর্শনার্থীদের কাছে এই সব সূক্ষ্ম ও জটিল কারুকাজের ভাস্কর্যগুলোর মূল্যও অনেক। তাই এখানে প্রতিযোগিতারও আয়োজন করা হয়। আর প্রতিযোগিতায় বিজয়ীর জন্য গ্র্যান্ড প্রাইজেরও ব্যবস্থা থাকে।

মূলার ভাস্কর্য, ছবি সূত্রঃ roughguides

২. রোড কিল কুক-অফ

ভোজন রসিক নন ভেজ অভিযাত্রীদের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার রোড কিল কুক অফ ফুড ফেস্টটি অত্যন্ত জনপ্রিয়। এখানে অভিযাত্রীরা পছন্দ অনুযায়ী নানা ধরনের মাংসের ডিশ উপভোগ করতে পারেন। প্রতি বছর মারলিনটোনের এই ছোট গ্রামে পেশাদার শেফ ও অপেশাদার অনেক মানুষ টেরিয়াকি ম্যারিনেটেড বিয়ার, র‍্যাক অব র‍্যাকুন, স্কুইরেল গ্র্যাভিসহ বিচিত্র সব  সুস্বাদু  ডিস তৈরি করে।

এখানে রান্নার প্রতিযোগিতাও হয়। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের উচ্চ অংকের অর্থ মূল্য পুরস্কার দেওয়া হয়। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের শুধু একটি নিয়মই মেনে চলতে হয়। আর তা হলো রান্নার জন্য শুধু মাত্র রাস্তায় প্রাপ্ত মৃত প্রাণীর মাংস ব্যবহার করতে হবে। মাংসের গ্রিলগুলো একবার রোস্ট হয়ে গেলে এখানে বিশেষ নাচের অনুষ্ঠান ও ডগ শো পরিবেশিত হয়। এই অনুষ্ঠান দুটি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার রোড কিল কুক-অফ ফেস্টিভালে নতুন মাত্রা যোগ করে।

রোড কিল কুক-অফ, ছবি সূত্রঃ roughguides

৩. মাংকি বুফে ফেস্টিভাল

থাইল্যান্ডে খেমার-যুগের মন্দির ফ্রা প্র্যাং স্যাম ইয়ট লোপবুরির ম্যাকাকসদের জন্য মাংকি বুফে ফেস্টিভালের আয়োজন করে। ম্যাকাকস হলো লম্বা লেজের দুষ্ট প্রজাতির বানর। এখানে বানরদের প্রচুর সম্মান করা হয়। আর তাই প্রতি বছর নভেম্বর মাসে এই উৎসবের আয়োজন করা হয়। বানরদের জন্য নানা রকমের রঙিন ফল সাজিয়ে রাখা হয়। আর দুষ্ট ম্যাকাকসরা এই ফলগুলো গ্রাস করতে এলাকার আনাচে কানাচে থেকে নেমে আসে।

দর্শনার্থীরাও বানরদের ফল খাওয়া দেখতে ভিড় করে। এখানে পিরামিডের আকৃতিতে আনারসের স্তূপ সাজানো হয়। কলা আর আঙ্গুর থালে থালে আসতে থাকে। এমনকি কোমল পানীয়েরও ব্যবস্থা থাকে। এমন রাজকীয় উৎসবের সবটাই আয়োজন করা হয় সম্মানিত দুষ্ট বানরদের জন্য।

মাংকি বুফে ফেস্টিভাল, ছবি সূত্রঃ roughguides

৪. ফলেসমিয়ার ফ্রগ লেগ ফেস্টিভাল

ফলেসমিয়ার ফ্রগ লেগ ফেস্টিভাল হলো গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ডস প্রত্যয়িত বিশ্বের সব থেকে বড় ফ্রগ লেগ ফেস্টিভাল। এই ফেস্টিভাল চার দিন ধরে চলে। ১৯৯০ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় এই উৎসব আয়োজিত হয়ে আসছে। এই ফেস্টিভালে হাজার হাজার ক্ষুধার্ত দর্শনার্থীরা ‘ফ্রগ পপস’ এবং ‘গেটর পাউডারসের’ স্বাদ নিতে ভিড় করে।

শহরের শিশুদের বিনোদনের জন্য ফান্ড রাইস করতে এই ফেস্টিভাল শুরু করা হয়েছিল। আর এখন বিচিত্র এই ফেস্টিভালটি বিশ্বজোড়া খ্যাতি অর্জন করেছে। প্রতি বছর হাজার হাজার মানুষ গেটর টেইল আর ফ্রগ লেগের স্বাদ নিতে এখানে আসে। এছাড়া বিনোদনের জন্য অদ্ভুত সব খাবারের পাশাপাশি নানা ধরনের রাইডের ব্যবস্থাও করা হয়।

ফ্রগ লেগ ফেস্টিভাল , ছবি সূত্রঃ roughguides

৫. জায়ান্ট অমলেট ফেস্টিভাল

ফ্রান্সের বেসিয়ার্সে এই জায়ান্ট অমলেট ফেস্টিভাল উদযাপিত হয়। এক সঙ্গে ১৫ হাজার ডিমের অমলেট তৈরি করা হয় এই উৎসবে। প্রতি বছর ইস্টারের সোমবার ফ্রান্সের বেসিয়ার্স নামের একটি গ্রামে এই জায়ান্ট অমলেট ফেস্টিভাল অনুষ্ঠিত হয়। হাজার হাজার মানুষ এই উৎসবে অংশ নেয়। এখানে বড় বড় বাঁশের তৈরি চামচ দিয়ে ডিম ভাজতে দেখা যায়। প্রত্যেকেই আবার এই বৃহদাকারের অমলেট থেকে টেস্ট করার জন্য ফ্রি স্যাম্পল পান। এই ফেস্টিভালের ঐতিহ্য এখন যুক্তরাষ্ট্র, আর্জেন্টিনা এবং কানাডাতে ছড়িয়ে গেছে। এই দেশগুলো নিজেদের মতো করে বৃহদাকারের অনেক ধরনের ডিশ তৈরি করে ফেস্টিভালের আয়োজন করে।

জায়ান্ট অমলেট ফেস্টিভাল, ছবি সূত্রঃ roughguides

৬. কুপার’স হিল চিজ রোলিং

ইংল্যান্ডের গ্লৌচেস্টারশায়ারের প্রায় সব জায়গায় খাড়া পাহাড়। পাহাড় থেকে ৮ পাউন্ডের একটি চিজের গোল বাক্স ফেলে দেওয়া হলো। আর তখনই পাহাড়ের উপর থেকে দৌড়ে নিচে নেমে এই বাক্সটি ধরার লড়াইয়ে নেমে গেল এক ঝাঁক তরুণ তরুণী। শুনতে সহজ মনে হলেও বাস্তবে অতটা সহজ নয়। অনেক সময় পাহাড়ের উপর থেকে চিজের রোলটি গড়িয়ে পড়ার আগেই প্রতিযোগীরা ডিগবাজি খেতে খেতে মুখ থুবড়ে পড়েন। তাই আহত প্রতিযোগীদের চিকিৎসার জন্য পাহাড়ের নিচে মেডিকেল দল প্রস্তুত থাকে। হাত-পা ভাঙা, ছিলে যাওয়া এই প্রতিযোগিতায় খুবই সাধারণ ঘটনা। এই পাহাড়ের দু’পাশে দর্শনার্থিরা সারি ধরে এই খেলাটি উপভোগ করেন। অনেক সময় দর্শনার্থীরাও গড়িয়ে পড়তে থাকেন। প্রতিযোগিতা শেষে উপস্থিত সবাইকেই চিজ দেওয়া হয়।

কুপার’স হিল চিজ রোলিং, ছবি সূত্রঃ roughguides

৭. বাহামার পাইনাপেল ফেস্টিভাল

বাহামাতে আনারস চাষকে উদযাপন করতে প্রতিবছর পাইনাপেল ফেস্টিভাল করা হয়। দেশটির এলুথ্রেরা দ্বীপের এই ফেস্টিভালে আনারস দিয়ে রান্নার প্রতিযোগিতার আয়োজন হয়। এছাড়া এই উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ আনারস খাওয়ার প্রতিযোগিতা। মে মাসের ৩১ তারিখ থেকে জুনের ৩ তারিখ পর্যন্ত উৎসবটি চলে। এখানকার পাইনাপেল ম্যান ট্রায়াথলন, লিটল মিস পাইনাপেল প্রিন্সেস নাটক উৎসবে অন্য মাত্রা যোগ করে। পাইনাপেল ম্যান ট্রায়াথলন হলো অনেক রকম খেলাধুলা সংবলিত একটি আকর্ষণীয় প্রতিযোগিতা।

পাইনাপেল ফেস্টিভাল, ছবি সূত্রঃ roughguides

দেশীয় ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে সব দেশেই নিজস্ব খাবারের প্রাধান্য দেওয়া হয়। আর তাই প্রতি বছর দেশীয় খাবার কেন্দ্র করে বিশ্বব্যাপী শত শত উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। সাংস্কৃতিক ভিন্নতার কারণে অনেক উৎসবই আমাদের কাছে অদ্ভুত মনে হতে পারে। কিন্তু সে দেশের মানুষের কাছে এটি খুবই সাধারণ। চাইলে আপনিও এই সকল ফেস্টিভালে ঘুরে আসতে পারেন। কেননা ফেস্টিভালের সময় এই সকল জায়গা ভ্রমণের জন্য সর্বোচ্চ আবেদন সৃষ্টি করে।

ফিচার ইমেজ- roughguides

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

চুনখোলা মসজিদের মায়ায় একদিন বাগেরহাটে

সুন্দরবনে মধু সংগ্রহ দেখতে গিয়ে মৌমাছির কামড় খাওয়ার স্মৃতি