অপরূপ গ্রিস!

গ্রিসের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের তুলনা খুঁজে পাওয়া সত্যিই কঠিন। চকচকে সাদা বালির অপূর্ব সব সৈকত আর ভূমধ্যসাগরের স্বচ্ছ নীল পানির স্বর্গরাজ্য এই গ্রিস। গ্রীষ্ম হোক বা শীত, গ্রিস আপনার চোখে প্রতিবারই ধরা দেবে নতুন রূপে। তাই দেরি না করে এখনই নিয়ে নিন গ্রিসের অসাধারণ কয়েকটি জায়গার খোঁজ!

১. এথেন্স

হাজার বছরের বৈচিত্র্যময় ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে এখনো মাথা তুলে দাঁড়িয়ে আছে গ্রিসের রাজধানী এথেন্স। এথেন্সে পৌঁছে আপনার প্রথম কাজই হবে, সমতল থেকে বেশ খানিকটা উঁচুতে অবস্থান করা বিখ্যাত এক্রোপোলিস ঘুরে দেখা।

দেবী এথেনার মন্দির “পারথেনোন” এর দেখাও পাবেন এখানেই। খ্রিস্টের জন্মের কয়েকশ বছর আগে তৈরি হওয়া এই মন্দির দেখে মুগ্ধ হতেই হবে আপনাকে। আর্কিওলজি নিয়ে পড়াশোনা করার ইচ্ছেও জাগতে পারে আপনার!

ছবিঃ এথন্সের বিখ্যাত এক্রোপোলিস; সূত্রঃ visitgreece.com

আগুনে আরো একটুখানি ঘি ঢালতে এরপর চলে যেতে পারেন এথেন্সের ন্যাশনাল আর্কিওলজিকাল মিউজিয়ামে! গ্রিক চিত্রকর্ম, ভাস্কর্য আর স্থাপত্যশৈলী সম্পর্কে অনেক কিছুই জানতে পারবেন নতুন করে!

সন্ধ্যায় ঢুঁ মারতে পারেন এখানকার ক্যাফেগুলোয়। গ্রিক বন্ধু জুটিয়ে ফেলার জন্য ক্যাফে সবসময়ই একটি আদর্শ জায়গা! আর নতুন দেশের নতুন বন্ধু আপনার ভ্রমণে নিশ্চিতভাবেই যোগ করবে নতুন মাত্রা। এই সুযোগটি নিতে ভুলবেন না কিন্তু!

ছবিঃ ন্যাশনাল আর্কিওলজিকাল মিউজিয়াম, এথেন্স সূত্রঃ visitgreece.com

নতুন বন্ধুদের সাথে রাতে বেরিয়ে পড়তে পারেন এথেন্সের “বৌজৌকিয়া” ক্লাবের উদ্দেশ্যে। এই ক্লাবগুলোয় এলে গ্রিক সুরের মূর্ছনায় নিজেকে হারিয়ে ফেলতে পারেন! গ্রিসে এলে অন্তত একবার হলেও এই ক্লাবে আসতেই হবে আপনাকে!   

২. পেলোপিনিজ পেনিনসুলা

ইস্থমাস অফ করিন্থ বা শুধুই “করিন্থ” নামের খালটি দুই পাহাড়ের ঠিক মাঝামাঝি খুবই সরু একটি জায়গা নিয়ে অবস্থান করছে। এথেন্স থেকে এই অপরূপ খাল হয়ে এবার চলে আসতে পারেন পেলোপিনিজ পেনিনসুলায়।

ছবিঃ অপরূপ ইস্থমাস অফ করিন্থ বা করিন্থ খাল সূত্রঃ mysteriousgreece.com

পেলোপিনিজে এলে পাবেন গ্রামীণ গ্রিসের ছোঁয়া। বিশাল জায়গা জুড়ে দেখতে পাবেন জলপাই গাছের সারি। জেলে গ্রামের খোঁজও পেয়ে যাবেন। তবে পেলোপিনিজের যে জিনিসটির কথা আপনি দীর্ঘদিন মনে রাখবেন, সেটা হচ্ছে খাবার! জলপাইয়ের তেলে রান্না করা তাজা মাংস, রোজমেরির নির্যাস দিয়ে তৈরি করা সামুদ্রিক মাছ কিংবা ম্যানৌরি পনির দিয়ে বানানো অমলেট আপনার জিভে জল এনে দেবেই!

ট্রয়ের যুদ্ধের কথা মনে আছে? রাজা অ্যাগামেমনন? যার অধীনে যুদ্ধ করেছিলেন স্বয়ং অ্যাকিলিস? সেই অ্যাগামেমননের সমাধির দেখাও পাবেন এখানে।

ছবিঃ ছোট্ট শহর নাফপ্লিও সূত্রঃ visitgreece.com

এমন আরো কিছু প্রাচীন ধ্বংসাবশেষের দেখা পেতে এখানকার ছোট্ট শহর নাফপ্লিও ঘুরে দেখতে পারেন।    

৩. ক্রিট

ক্রিট গ্রিসের সবচেয়ে বড় দ্বীপ। চমৎকার সব সৈকত, পাহাড়, পর্বত আর প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনে ঘেরা অপরূপ এক জায়গা এই ক্রিট। হাইকিংয়ের জন্যও ক্রিট আদর্শ। বিশেষ করে শীতকালে এখানে এলে দেখতে পাবেন শ্বেতশুভ্র তুষার। কমলা আর অ্যামন্ডের বনের ভেতর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় অনুভব করবেন এক অদ্ভুত প্রশান্তি।

ছবিঃ অপরূপ দ্বীপ ক্রিট সূত্রঃ beauty of travel

এখানে এলে আপনাকে নসোস নামের শহরটায় যেতেই হবে। ধারণা করা হয় এই নসোসই ইউরোপের সবচেয়ে পুরনো শহর! কথিত আছে, প্রায় নয় হাজার বছর আগে থেকেই এখানে ছিল মানুষের বসতি!  

ছবিঃ ইউরোপের সবেচেয়ে পুরনো শহর নসোস সূত্রঃ beauty of travel

৪. হাইড্রা  

গ্রিসের আরেকটি অসাধারণ দ্বীপের নাম হাইড্রা। চমকে দেয়া ব্যাপারটি হলো, হাইড্রায় আপনি কোনো বাইক, গাড়ি বা ট্যাক্সির খোঁজ পাবেন না! এখানে যন্ত্রচালিত সব ধরনের যানবাহন চলাচল একদম নিষিদ্ধ! কাজেই হাইড্রায় নেই কোনো কালো ধোঁয়া, নেই হর্নের বিরক্তিকর শব্দ। গাড়ি যেমন নেই, তেমনি ঘোড়াও নেই এখানে। তবে আপনি গাধা পাবেন!


ছবিঃ হাইড্রা দ্বীপের বিখ্যাত বাহন গাধা! সূত্রঃ Beautiful Hydra

জ্বি, ঠিকই দেখছেন। এখানে চলাচলের একমাত্র অবলম্বন হচ্ছে গাধা! গাধায় চড়েই এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় যেতে হবে আপনাকে। নইলে “নিজের পা”ই আপনার একমাত্র সম্বল। তবে পায়ে হেঁটে এমন অপূর্ব একটি জায়গা ঘুরে দেখতে আপনার একটুও অস্বস্তি লাগবে না, সেটা নির্দ্বিধায় বলা যায়।  

ছবিঃ অপরূপ হাইড্রার পোর্টে দেখা যাচ্ছে ওয়াটার ট্যাক্সি সূত্রঃ Beautiful Hydra

পুরো দ্বীপটাই ইজিয়ান নামের চোখ ধাঁধানো এক ছোট্ট সাগর দিয়ে ঘেরা। কাজেই ওয়াটার ট্যাক্সি পাবেন প্রচুর। এই ওয়াটার ট্যাক্সিতে চড়ে প্রিয় মানুষটির হাতে হাত রেখে পুরো হাইড্রা দ্বীপটা ঘুরে দেখা হতে পারে, আপনার জীবনের অন্যতম সেরা স্মৃতিগুলোর একটি! হানিমুন গন্তব্য হিসেবে হাইড্রার নামটা টুকে রাখতে পারেন এখনি!  

৫. ডেলফি

আপনি যদি অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় হয়ে থাকেন, তবে ডেলফিতে আসতেই হবে আপনাকে। হাইকিং আর ট্রেকিংয়ের জন্য গ্রিসের অন্যতম সেরা শহর এটি। আর এর অবস্থান? লাইমস্টোনের পর্বত, মাউন্ট পার্নাসাসের ওপরে!

ছবিঃ অ্যাডভেঞ্চার প্রেমীদের জন্য একটি আদর্শ স্থান এই মাউন্ট পার্নাসাস সূত্রঃ Lonely Planet

ট্রেকিং করে এই পর্বতের গা বেয়ে উঠতে শুরু করলে আপনি পাবেন বেশ কিছু প্রাচীন ধ্বংসাবশেষের দেখা। এত উঁচুতেও আপনি দেবী এথেনার হাজার বছরের পুরনো ভাঙা মন্দির দেখতে পাবেন!

ছবিঃ অপরূপ ডেলফি সূত্রঃ Lonely Planet

মাউন্ট পার্নাসাসে আছে রোমাঞ্চকর ২৩টি ট্রেইল! যে কোনোটি ধরেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকছে আপনার সামনে। আর শীতকালে এলে স্কিয়িংও করতে পারবেন এখানে।    

ফিচার ইমেজ- visitgreece.com

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিদায় ক্ষণে ডুয়ার্স হয়ে শিলিগুড়ির পথে পান্তরে

নীল-হলুদের কমলার গ্রাম হলদিয়ানি