ভরা বর্ষায় আমিয়াখুম অ্যাডভেঞ্চার সাথে কাইক্ষাং ঝর্ণা

এই ইভেন্ট বাউন্ডূলে গ্রুপ এর অফিসিয়াল ইভেন্ট।
Event Link
আমাদের ফেসবুক গ্রুপঃ https://www.facebook.com/groups/bounduleX/
আমাদের ফেসবুক পেজঃ https://www.facebook.com/bounduletravel/
ভরা বর্ষায় যারা অ্যাডভেঞ্চার করতে চান তাদের জন্য সবচেয়ে আদর্শ ট্রেইল হচ্ছে আমিয়াখুম ট্রেইল, শীত আর খরার সময় কাটিয়ে রেমাক্রি খাল তখন হয়ে ওঠে পূর্ণ যৌবনা, কাইক্ষাং ঝিরির ঝর্ণাগুলো বৃষ্টির ছোঁয়া পেয়ে জেগে ওঠে আর পূর্ণ যৌবনে এসে পৌছে। নাফাখুম আর আমিয়াখুম হয়ে উঠে ক্ষুব্ধ, প্রতিবাদ মূখর যুবকের মতো। তখনকার আমিয়াখুম এর পানি পতনের আওয়াজ শুনা যায় দেবতা পাহাড়েরও উপর থেকে।
তাই এই বর্ষার আমিয়াখুম প্লান আমরা সাজিয়েছি দুইভাবে, প্লান-১ এ থাকবে নাফাখুম, আমিয়াখুম আর প্লান-২ এ থাকবে এর সাথে গোটা ৪ ঝর্ণা।
আমাদের প্লানঃ
১। ২রা আগষ্ট তারিখ ব্রহস্পতিবার রাতের বাসে আমরা চলে যাব বান্দরবানে, আশা করি আমরা সকাল বেলায় বান্দরবান পৌছে যাব।
২। বান্দরবানে পৌছে সকাল বেলায় নাস্তা করে নিব , নাস্তা করেই উঠে যাব চান্দের গাড়িতে থানচির উদ্দেশ্যে, সেখান থেকে থানা, বিজিবির পার্মিসান নিয়ে নৌকা করে রওনা করব রেমাক্রির উদ্দেশ্যে, সেখান থেকে প্রায় ২-৩ ঘণ্টা হেঁটে চলে যাব নাফাখুম পাড়ায়, সেখানে আমরা রাতের বেলায় থাকব।
৩। সকাল বেলায় দেখব নাফাখুম। চলে যাব এরপর থুইসাপাড়ায়। সেখান থেকে আমিয়াখুম দেখে রাতের বেলায় চলে আসব থুইসাপাড়ায়।
এইখান এ এসে প্লান দুই ভাবে হবে।
প্লান ১ঃ
যারা শুধু আমিয়াখুম , নাফাখুম যাবেন তারা সকাল বেলায় থুইসাপাড়া থেকে পদ্মঝিরি হয়ে থানচি ফিরে আসব, সেখান থেকে বান্দরবান এবং রাতের বাসে ঢাকার উদ্দেশে রওনা করব।
এই গ্রুপ এর মেম্বার রা ৬ই জুলাই সকাল বেলায় ঢাকায় থাকবেন
প্লান ২ঃ
এই প্লান এর মেম্বার রা এরপর বের হবে কাইক্ষাং ঝর্ণার উদ্দেশ্যে, ঝর্ণা দেখে তারা রওনা দিবেন পদ্মঝিরি হয়ে থানচির দিকে, থানচি থেকে বান্দরবান হয়ে তারা ঢাকার দিকে রওনা দিবেন।
এই প্লান এর মেম্বার রা ৭ই আগষ্ট সকালে ঢাকা থাকবেন ইনশাআল্লাহ।
লক্ষ্যনীয়ঃ
১। এই ট্রিপ টা মডারেট ট্রেকিং ট্রিপ, ছেলে মেয়ে সবাই যেতে পারবেন । তবে যাদের নিজেদের মানসিক শক্তির উপর আস্থা আছে তারাই যাবেন, মনে রাখতে হবে ট্রেকিং এ শারীরিক শক্তি নই মানসিক শক্তি প্রাধান্য পায় বেশি।
২। যেহেতু ট্রেকিং ট্রিপ তার উপর আমরা ৪ দিন থাকব পাহাড়ি পরিবেশ এ তাই খাবার দাবার আমাদের হয়ত শহুরে হবেনা তবে আমরা বেষ্ট পসিবল খাবারই খাব।
৩। ৩য় এবং ৪র্থ দিন সকাল বেলা আমরা শুকনা খাবার খাব আমাদের প্লানিং এর সুবিদার্থে।( বিস্কুট, কেক, স্যূপ, নুডুলস)
৪। পাহাড়ি পরিবেশ নষ্ট হয় এমন কোন কাজ আমরা করবনা।
৫। মাদকদ্রব্য ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষেধ, কেউ ধূমপান করতে চাইলে টীম থেকে দূরে যেয়ে করবেন যেন টিম এর কোন প্রব্লেম না হয়।
৬। সিট বিন্যাস এর ক্ষেত্রে আমরা বুকিং সিরিয়াল কে প্রাধান্য দিব, যাকে যেই সিট দেয়া হবে, দয়া করে ভিন্ন কিছু অনুরোধ করবেন না, সবচেয়ে সহজ হচ্ছে ভাল সিট পেতে চাইলে আগে আগে বুকিং দিয়ে দেয়া।
৭। মেয়ে রা মায়ের জাতি, তাদের কে সেই নজরেই দেখব, টীম এ কোন মেয়ে থাকলে তাদের কে সম্মান এর নজরে দেখব, পাহাড়ি মেয়েদের ব্যাপারে খুব সেনসেটিভ আচরন করব তাদের না বলে কোন ছবি তুলা যাবেনা।
৮। টিম লিডার এবং গাইডের উপর পরিপূর্ণ আস্থা রাখতে হবে।
আমাদের ট্যুর বাজেটঃ
যারা প্লান ১ এ যাবেন তাদের জন্য ৫,৮০০ টাকা
যারা প্লান ২ এ যাবেন তাদের জন্য ৬,৫০০ টাকা
এই টাকায় আপনি পাবেনঃ
১। ঢাকা-বান্দরবান-বান্দরবান নন এসি টিকিট
২। বান্দরবান- থানচি চান্দের গাড়ি যাওয়া।
৩। থানচি-বান্দরবান লোকাল বাসে আসা।
৪। সফরে ৪ দিন মোট ১২ বেলা খাবার ।
৫। থানচি থেকে রেমাক্রি বোট ভাড়া।
৬। লোকাল দের ঘরে থাকার সমস্ত খরচ
৭। সকল ধরনের লোকাল গাইড , মূল গাইড, ভেলার খরচ
৮। লাইফ জ্যাকেট রাখতে হবে সাথে। ( যেহেতু ভরা বর্ষা থাকবে তখন তাই লাইফ জ্যাকেট মাস্ট)
কিভাবে কনফার্ম করবেনঃ
01674974381 নাম্বারে ২০৪০ টাকা সেন্ড করে আপনার আসন কনফার্ম করুন।
যে কোন প্রয়োজনেঃ
আবু বকর – ০১৬৭৪৯৭৪৩৮১
অভি- ০১৯৩১-৮০৩২৩৮

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভেনাসের ভাস্কর্য সম্বলিত হলদে পাড় মেরুন রঙের শশীলজ

বরিশালের পেয়ারা বাগানে বাউন্ডূলেরা