মাত্র ৩৫০০ টাকায় সাজেকে পূর্ণিমা বিলাস!

এটি বৃত্ত-Britto Travel & Tourism এর একটি ইভেন্ট।
বর্ষার পূর্ণিমায় সাজেক!
রিসোর্টঃ মেঘপুঞ্জি, মেঘমাচাং, নিসর্গ ও অবকাশ – বেস্ট ভিউয়ের ৪টি রিসোর্ট!
পাহাড়ের গায়ে হেলান দিয়ে এখানে আকাশ আশ্রয় নেয়, মেঘ-পাহাড়ের বন্ধনহীন মিলন দেখা যায়। কোথাও কোথাও তুলার মতো দলছুট মেঘের স্তুপ ভেসে বেড়ায় পাহাড়ের চূড়ায়, যেন স্বপ্নরাজ্য। আকাশ ভরা পূর্ণিমার আলোয় মোহনীয় হয়ে থাকে চারিপাশ, চুপচাপ ঘুমিয়ে পড়ে দূরের ঐ পাহাড়, মেঘ এসে আলতো করে ছুঁয়ে দিয়ে যায়।
ভ্রমন তারিখঃ ২৬শে জুলাই – ২৮শে জুলাই, ২০১৮
বিবরণঃ
২৬শে জুলাই, বৃহস্পতিবার – ঢাকার ফকিরাপুল বাস কাউন্টার থেকে রাতের নন-এসি বাসে যাত্রা শুরু
২৭শে জুলাই, শুক্রবার – খাগড়াছড়ি পৌঁছে সকালে নাস্তা করে রিজার্ভ ট্যুরিস্ট জীপে করে সাজেক এর উদ্দেশ্যে যাত্রা (আর্মি এসকর্ট সকাল ১০-১০:৩০টা)। পথিমধ্যে হাজাছড়া ঝর্ণা দর্শন। রিসোর্টে চেক-ইন করে ফ্রেশ হয়ে দুপুরে লাঞ্চ করবো পাহাড়ি রেস্টুরেন্টে, তারপর পুরো সাজেক চষে বেড়াবো।
২৮শে জুলাই, শনিবার – কংলাক পাড়ায় সূর্যোদয় উপভোগ করে নাস্তা সেরে এরপর সকাল ১০:৩০-১১টার আর্মি এসকর্টে করে খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্যে যাত্রা। লাঞ্চ করে দুপুরের নন-এসি বাসে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে ইনশাআল্লাহ রাতের মধ্যেই ঢাকায় পৌঁছানো।
খরচঃ ৩,৫০০টাকা/পারসন, কাপলঃ ৪,৫০০টাকা/পারসন
আসন সংখ্যাঃ ৭২ জন।
ভ্রমণ স্থানঃ
১. সাজেক (রুইলুই পাড়া,কংলাক পাড়া,হ্যালিপেড) ২. হাজাছড়া ঝর্ণা
রিছাং ঝর্ণা,আলুটিলা গুহা বা অন্যান্য ভ্রমণ স্থান সমূহ এই ট্যুরে অন্তর্ভুক্ত নয়!
সাজেকে থাকবো আমাদের নিজস্ব রিসোর্ট #মেঘপুঞ্জি, #মেঘমাচাং, #নিসর্গ#অবকাশ ইকো রিসোর্টে! ৩-৪ জন শেয়ারিং বেসিসে থাকতে হবে (২-৩ জন মেইন বেড এবং ১-২ জন এক্সট্রা ফ্লোরিং বেড) এবং থাকার ব্যপারে কোন উজর-আপত্তি পরবর্তীতে গ্রহণযোগ্য নয়। সুতরাং এটা মেনে নিয়েই সাজেক ভ্রমন করবেন আশা করি। খাবারের ক্ষেত্রেও একই কথা। পাহাড়ি চালের ভাত, ভর্তা, ডিম, মুরগী। তবে আপ্রান চেষ্টা করবো খাগড়াছড়ির ঐতিহ্যবাহী কিছু খাবার খাওয়াতে।
যা যা পাচ্ছেনঃ
১। ঢাকা-সাজেক-ঢাকা সমস্ত পরিবহন খরচ
২। ২৭শে জুলাই সকাল থেকে ২৮শে জুলাই দুপুর পর্যন্ত খাওয়া-দাওয়া।
৩। গ্রুপ টি-শার্ট
যা যা থাকছেনা এই খরচের মধ্যেঃ
১। যেকোনো ধরণের ব্যক্তিগত খরচ।
২। আসা-যাওয়ার পথের বিরতিতে হাইওয়ে রেস্টুরেন্টে কোনো খাবার-দাবার।
কিছু নির্দেশাবলীঃ
১. ২০শে জুলাইয়ের মধ্যে ২,০০০ টাকা অগ্রীম দিয়ে নিজ নিজ আসন কনফার্ম করতে হবে কারণ আমাদের বাস, চান্দের গাড়ী বুকিং দিতে হবে। বাকি ১,৫০০ টাকা ট্যুরের সময় পেমেন্ট করতে হবে।
টাকা পাঠানোর নিয়মঃ
আগ্রহীরা দ্রুত ২,০৪০/= টাকা ডাঃ জিয়ন ০১৯১১৭২২০০৭,০১৮১৪২৭৫৭৫৫ পার্সোনাল নম্বরে বিক্যাশ করে আপনার যাত্রা কনফার্ম করতে পারবেন। bKash করেই সাথে সাথে ঐ নম্বরে ফোন করে নিজের নাম এবং Transaction Id জানাবার পরেই আপনার আসন কনফার্ম হবে। অথবা সামনা-সামনিও দেখা করে টাকা দিতে পারেন।
২। এটি একটি low cost ইভেন্ট কিন্তু সার্ভিস পাবেন ইনশাআল্লাহ ১০০ তে ১০০। কটেজে শেয়ার করে থাকতে হবে, তাই এটা যারা মেনে নিতে পারবেন না তাঁদের জন্যে সমবেদনা।
৩। সাজেকে ইলেক্ট্রিসিটি বলতে সোলার ও কিছু সময়ের জন্যে জেনারেটর। সুতরাং পাওয়ার ব্যাংক নিয়ে যাবেন সাথে।
৪। বৃষ্টি-বাদলার মৌসুম চলছে তাই সাথে পর্যাপ্ত প্লাস্টিক ব্যাগ রাখবেন।
৫। সর্বোপরি একটি ভ্রমনপিপাসু মন প্রয়োজন একটি ট্যুরকে সুন্দর করার জন্যে।
যে কোন প্রয়োজনে যোগাযোগঃ ডা জিয়ন ০১৯১১৭২২০০৭, শাওন ০১৯১১২৫৪৩৯৭।
বৃত্ত-Britto… Travel & Tourism
Office : House-316/1, Road-2, (Ground floor),
Baitul Aman Housing Society, Adabar Dhaka-1207.
Mobile: +88 01911 722 007, +88 01911 254397.
Email : [email protected]
Cafe Britto – ক্যাফে বৃত্ত
2nd Office : House-836, Road-2, (1st floor),
Baitul Aman Housing Society, Adabar Dhaka-1207.
Mobile: +88 01911 722 007, +88 01911 254397.
Facebook Page : https://www.facebook.com/pg/BrittoTourism
Facebook Group : https://www.facebook.com/groups/BrittoTourism/
প্রয়োজনে যোগাযোগঃ
1. Dr. Mazharul Xion – 019117 22007,
2. Tawhidul Islam Shawon – 01911 254397,
3. কামরুন নাহার ইতি- 01988 011903.

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভরা পূর্ণিমায় দিগন্তের হাওর বিলাস

মিরিকের মায়াবী মেঘের পানে