উপভোগ্য ১৫টি অসাধারণ সমুদ্র সৈকত

ভ্রমণে সার্বজনীন উপকারীতা পাওয়া যায় আর এর মাঝে ভ্রমণকারীদের বেশীরভাগই সমুদ্র সৈকত পছন্দ করে। যেখানে নিয়মিত ভ্রমণকারীরা নীল পানি আর সাদা বালুর আদিম সৈকতের খোঁজে থাকে সেখানে এ্যাডভেঞ্চারাস ভ্রমণকারীরা কিছুটা অনন্য এবং উদ্ভট সৈকতই পছন্দ করে।

যদি আপনি সেরকমই এ্যাডভেঞ্চারপ্রেমী ভ্রমণকারীদের মধ্যে একজন হয়ে থাকেন এবং অন্যরকম সৈকত দেখার মাধ্যমে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চান তবে এই লেখাটি আপনার জন্য। এই সমুদ্র সৈকতগুলো সমুদ্র সৈকত সম্পর্কে আপনার ধারণাই  পাল্টে দিতে পারে।

১) গ্লো-ইন-দ্য-ডার্ক বিচ, ভাদ্যু, মালদ্বীপ

গ্লো-ইন-দ্য-ডার্ক বিচ:source:bb901.com

এই সমুদ্র সৈকত দেখতে পৃথিবীর বাইরের কোনো একটি জায়গা বলেই আপনার মনে হতে পারে। মালদ্বীপের সৈকতের উপকূলে আকাশের উজ্জ্বল তারার ঝলক এক ধরনের পরিবেশ তৈরি করে যা কিনা বাইলুমিনিসেক্ট ফায়োপ্ল্যাঙ্কটনের কারণে হয়ে থাকে। এই জীবগুলো একটি করে দেখলে অনেক ছোট কিন্তু একসাথে জড়ো হলে তারা এক ধরনের চমৎকার আলো দেখিয়ে থাকে।

২) গ্লাস বীচ, ক্যালিফোর্নিয়া, আমেরিকা

গ্লাস বীচ;source:misadventuresmag.com

ক্যালিফোর্নিয়ার এই গ্লাস বিচ এখন হয়তো দেখতে খুব সুন্দর কিন্তু এর পেছনে একটি কালো অতীত রয়েছে বটে। অনেক বছর আগে এই স্থানের লোকাল মানুষ বোতলে আবর্জনা ভরে এখানেই ফেলত। আর এই গ্লাসগুলো উপকূলে এসে পড়ে থাকে। এবং এই গ্লাসগুলো আবার পানি দিয়েই বার বার চুর্ণ-বিচুর্ণ হতে থাকে।

৩) গ্রিন স্যান্ড, কউরোউ, ফ্রেঞ্চ গুইয়ানা

গ্রিন স্যান্ড;source:bestamazingplacesonearth.com

এই বিচটি আপনার কল্পনার মতো হলুদ অথবা সাদা বালির উপকূল দিয়ে ঘেরা নয়। বরং আপনি মুগ্ধ আর অবাক হবেন এই বিচের সবুজ বালি দেখে।

৪) হিডেন বিচ, মাড়িয়েটা, ম্যাক্সিকো

 হিডেন বিচ;source:bb901.com

ম্যাক্সিকোর ইজলাস মাড়িয়েটায় এই বিচ অবস্থিত। এবং এটি ম্যাক্সিকোর অন্যতম বিস্ময়। ‘প্লায়া দেল আমর’ যার অর্থ ভালোবাসার সৈকত। কিন্তু তার চেয়েও বেশি এই সমুদ্র সৈকতটি হিডেন বিচ বা লুকানো সৈকত বলেই পরিচিত। এটি একটি গুহার ভেতরে সুবিশাল ছাদ নিয়ে রয়েছে সেখানে সূর্যের আলো সহজেই ঢুকতে পারে।

৫) পিঙ্ক স্যান্ড বিচ, বাহামাস

পিঙ্ক স্যান্ড বিচ: source: brightside.com

খুব অবাক করা বিষয় এটি নয় যে, আপনি এখানে মধুচন্দ্রিমার যুগল দেখতে পাবেন অর্থাৎ হানিমুন কাপল। বাহামাসের এই সৈকত এতটাই রোমান্টিক যে এখানে অনেকেই হানিমুন করতে আসেন। আর যাই হোক, গোলাপি বালির এই স্বর্গীয় দ্বীপে প্রিয়জনকে নিয়ে ঘুরতে আসার চেয়ে রোমান্টিক আর কী হতে পারে!

৬) জায়েন্টস কজাওয়ে বিচ, আয়ারল্যান্ড

জায়েন্টস কজাওয়ে বিচ;source:fototripper.com

৫০ লক্ষ বছর আগে থেকে আগ্নেয়গিরির লাভা দিয়ে ফাটল হতে হতে এই স্তম্ভগুলো কুলিং এবং সলিডফায়িং প্রক্রিয়ায় তৈরি হয়েছে এই সৈকত।

৭) শেল বিচ, শার্ক বে, আস্ট্রেলিয়া

শেল বিচ;source:australiaforeveryone.com.au

এই সমুদ্র অতিরিক্ত লবণাক্ত হওয়ার কারণে সেখানে শামুক-ঝিনুক এমন প্রাণীগুলো বাঁচতে পারে না। আর এই ঝিনুকের খোলসগুলোই সৈকতটিকে অনন্য করেছে।

৮) ফাইফি পারপেল স্যান্ড বিচ, ক্যালিফোর্নিয়া, আমেরিকা

ফাইফি পারপেল স্যান্ড বিচ; source: brightside.com

এই সরল, শান্ত ও মনোরম বেগুনি বালিগুলো সৈকতের উপকূলে এবং এর আশেপাশের পাহাড় ক্ষয়ে ম্যাংগানিজ গার্নেটের জমা হওয়ার কারণে সৃষ্টি হয়।

৯) বেনাগিল সি কেভ, পর্তুগাল

বেনাগিল সি কেভ;source:ourplnt.com

এই আলগার্ভ উপকূল তৈরি হয়েছে সমুদ্রের পানির অনবরত আঘাতে এবং চুনাপাথর জমে। এবং এভাবে এখন অসাধারণ গুহাও তৈরি হয়েছে।

১০) দ্য বিচ অফ দ্য ক্যাথেড্রালস, রিবেডিও, স্পেন

দ্য বিচ অফ দ্য ক্যাথেড্রালস; source: thewowstyle.com

এই সম্মোহনীয় তোরণ তৈরি হয়েছে হাজার বছর ধরে পানির অবিরত নিষ্পেষণের কারণে।

১১) বোলিং বল বিচ, ক্যালিফোর্নিয়া, আমেরিকা

বোলিং বল বিচ:source:mensjournal.com

ক্যালিফোর্নিয়ার মেন্ডোকিনো উপকূলের এই সৈকতটিকে অনন্য অসাধারণ কিছু পাথর গোলাকার করে চিহ্নিত করে রেখেছে। যখন পানি কমে গিয়ে ভাটা হয় তখন এই সৈকত দেখার সবচেয়ে উপযুক্ত সময় কারণ তখনি আপনি সৈকতের অসাধারণ এই কাঠামো দেখতে পারবেন।

১২) হট ওয়াটার বীচ, নিউজিল্যান্ড

 হট ওয়াটার বীচ;source:www.youtube.com

এই সমুদ্র সৈকতে গেলে আপনি দেখতে পাবেন ঘুরতে আসা ভ্রমণকারীরা সমুদ্রের বালিতে গর্ত খুঁড়ছে আর তারপর এই গর্তে বসে বা শুয়ে নিজেদের ভেজাচ্ছে। বিষয়টি উপভোগ করার মতো। কারণ যে পানিটি বালুর ভেতর দিয়ে ফিল্টার হয়ে উপচে আসে তা গরম পানি এবং খুবই আরামদায়ক।

১৩) রেড স্যান্ড বিচ, রাবিদা, গালাপাগোস

রেড স্যান্ড বিচ ;source:brightside.com

লোহা সমৃদ্ধ লাভা জমে অক্সিডাইজ হওয়ার কারণে এই বীচের বালির রঙ লাল। তবে যে কারণেই বিচের বালির রঙ যেমনি হয়ে থাক না কেন, বিচে অন্যরকম সৌন্দর্যে মুগ্ধ হওয়াই মূল কথা, বাকি সব নিয়ে মাথা না ঘামালেও চলবে।

১৪) আনস সোর্স ডি আর্জেন্ট, সিশেলস

আনস সোর্স ডি আর্জেন্ট;source:www.indian-ocean.com

গ্রানাইট পাথর দ্বারা বেষ্টিত প্রাকৃতিক ভাষ্কর্যের উপর পান্না রঙের পানি অনবরত ছিটিয়ে পড়তে থাকে এই চিত্রানুগ সাদা বালির বিচে। যদি এত সুন্দর চিত্রটিও আপনাকে এই বিচ ঘুরে দেখার জন্য যথেষ্ট পরিমাণ উৎসাহিত না করে তবে আপনার জন্য রয়েছে আরও একটি ভালো সংবাদ। তা হলো, এই সৈকতটি এমন অল্প কিছু সৈকতের মধ্যে একটি যা কিনা পশ্চিমমুখী। এ কারণে আপনি এখানে সূর্যাস্তের চমৎকার দৃশ্য উপভোগ করতে পারবেন।

১৫) নাভাজিয়ো বিচ, যাকিনথোস, গ্রীস

 নাভাজিয়ো বিচ;source:brightside.com

নাভাজিয়ো বিচ অথবা শিপরেক বিচ নামে পরিচিত এই সৈকতটি খুবই বিখ্যাত এবং ছবি তোলার ক্ষেত্রে অত্যন্ত উপযুক্ত। উল্ল্যেখ্য যে, শিপরেক বিচের নামকরণ এজন্যই কারণ এমভি প্যানাগিওটিস নামের ভাঙা একটি জাহাজ এই বিচে রয়েছে। বিশ্বাস করা হয়ে থাকে যে এ জাহাজের মাধ্যমে সিগারেট, ওয়াইন এবং নারী পাচার করা হতো।

সুতরাং কোন সমুদ্র সৈকতে আপনি সবার প্রথমে ঘুরে আসতে চান?

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভার্জিন আইল্যান্ডস ভ্রমণ: যে সাতটি কাজ অবশ্যই করবেন

জিলাপির প্যাঁচে ঘুরে ঘুরে বাটালি পাহাড়ে আরোহণ